ক্যান্সার চিকিৎসায় রশ্মি-প্রযুক্তির যথেচ্ছ ব্যবহারে ঝুঁকি বাড়ছে

পর্যাপ্ত দক্ষ জনবল না থাকায় দেশে ক্যান্সার চিকিৎসায় রশ্মি-প্রযুক্তির যথেচ্ছ ব্যবহারের কারণে রোগীদের মধ্যে ক্যান্সার বিস্তারের ঝুঁকি বাড়ছে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। গতকাল মঙ্গলবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনে একটি ট্রাস্টের উদ্যোগে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলা হয়।

সাউথ এশিয়া সেন্টার ফর মেডিক্যাল ফিজিকস অ্যান্ড ক্যান্সার রিসার্চের আওতায় ‘আলো ভুবন’ নামের এই ট্রাস্ট সংবাদ সম্মেলন করে।

সাউথ এশিয়া সেন্টার ফর মেডিক্যাল ফিজিকস অ্যান্ড ক্যান্সার রিসার্চের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. গোলাম আবু জাকারিয়া ও গণবিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. হাসিন অনুপমা আজহারী সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন। তাঁরা বাংলাদেশে ক্যান্সার চিকিৎসায় জনবল পরিস্থিতি তুলে ধরে এ খাতে দক্ষ জনবল তৈরির তাগিদ দেন।

অধ্যাপক ড. গোলাম আবু জাকারিয়া বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশে ক্যান্সার চিকিৎসায় আধুনিক প্রযুক্তির যন্ত্রপাতির ব্যবহার অনেক বেড়েছে। রেডিওথেরাপি এ রকম একটি চিকিৎসা। আন্তর্জাতিক প্রটোকল অনুসারেই রেডিওথেরাপি পদ্ধতিতে চিকিৎসার সময় ক্যান্সার বিশেষজ্ঞদের পাশাপাশি মেডিক্যাল ফিজিসিস্ট থাকার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। বাংলাদেশে ১৬ কোটির বেশি মানুষের জন্য কমপক্ষে ১৬০টি রেডিওথেরাপি মেশিন, কমপক্ষে ৩২০ জন মেডিক্যাল ফিজিসিস্ট, ৬০০ জন অনকোলজিস্ট ও সমপরিমাণ টেকনিশিয়ান দরকার। Read More